সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪

সাপ্তাহিক নবযুগ :: Weekly Nobojug
ড. ইউনূসের মামলা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসংঘ

ড. ইউনূসের মামলা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসংঘ

নোবেলপুরস্কার বিজয়ী একমাত্র বাংলাদেশি প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে যে মামলা তা অত্যন্ত নিবিড়ভাবে ফলো করছে জাতিসংঘ। কাজের মাধ্যমে তিনি জাতিসংঘের প্রিয় বন্ধু। তার কাজকেই অনুসরণ করে বর্তমানে উন্নয়ন কাজ চালিয়ে যাচ্ছে জাতিসংঘ। জাতিসংঘের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব কথা জানিয়েছেন মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরাঁর মুখপাত্র স্টিফেন ডুজাররিক। তিনি আরও বলেছেন, শান্তিপূর্ণভাবে নিজেদের (মত) প্রকাশের কারণে যেসব মানুষকে আটক করা হয়েছে অব্যাহতভাবে তাদের মুক্তি দাবি করে জাতিসংঘ। ব্রিফিংয়ে তার কাছে সাংবাদিক মুশফিকুল ফজল আনসারি জানতে চান- ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত জালিয়াতির নির্বাচনের আগে বাংলাদেশে বিরোধী দলের কমপক্ষে ২৫ হাজার সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে নিরাপত্তা হেফাজতে মারা গেছেন ১৩ জন। আন্তর্জাতিক চাপের মুখে হাতেগোনা কয়েকজন মাত্র মুক্তি পেয়েছেন। আপনি কি বাকি বন্দিদের মুক্তি দাবি করবেন? মুশফিকের এ প্রশ্নের উত্তরে স্টিফেন ডুজাররিক বলেন, আমি মনে করি আমরা খুব ধারাবাহিকভাবে অগ্রসর হচ্ছি। যেসব ব্যক্তিকে নিছক শান্তিপূর্ণভাবে তাদের (মত) প্রকাশের কারণে আটক করা হয়েছে তাদের সবার অব্যাহতভাবে মুক্তি দাবি করি আমরা।

সীমান্তে,পাথরজলের ক্যানভাসে

সীমান্তে,পাথরজলের ক্যানভাসে

এক. স্বদেশ প্রেমকে এখানকার অনেকেই হোমসিক বলে। আমি তাদের কথা শুনে আশ্চর্য হয়ে যাই। নিজের দেশকে ফিল করা বা অনুভব করা, মাঝে মাঝে দেশের আত্মীয় স্বজন, বন্ধু-বান্ধব কিংবা প্রিয়জনদের জন্য চোখের কোনে জল চলে আসা কি হোমসিক? আমি তাদেরকে বলি, ওটাই আমার ভালোবাসা, ওটাই আমার প্রেম। সাত বছরের মধ্যে দু’বার দেশে ঘুরে এসেছি। প্রথমবার, করোনার পর পরই, ২১ সালের ফেব্রুয়ারি, একা। এবার গিয়েছি, দ্বাদশ নির্বাচনীর আগে। অর্থ্যাৎ ডিসেম্বরের ৩০ তারিখ, ২০২৩। ছিলাম, ২৪ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। খুবই স্বল্প সময়। পরিবারের সবাইকে নিয়ে গেছি। বাড়ি যেহেতু সিলেট, সেহেতু এই স্বল্প সময়ের মধ্যে আশপাশে ঘুরে দেখেছি কিছু দর্শনীয় স্থান। এসব জায়গায় এর আগেও গিয়েছি। অথচ, যখনই যাই, ততবারই মনে হয়, নতুন করে দেখছি, নতুন করে প্রেমে পড়ছি, নতুন করে আবারো মনের মনিকোঠায় দেশের জন্য মায়া মমতা সঞ্চয় করে ফিরছি।

Gias Ahmed

বাংলাদেশ ইস্যুতে নীতি পরিবর্তন হয়নি: কিরবি

বাংলাদেশ ইস্যুতে নীতি পরিবর্তনের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে হোয়াইট হাউস। তারা বলেছে, বাংলাদেশের জনগণের অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের আকাঙ্ক্ষার সমর্থনে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থানের কোনো পরিবর্তন হয়নি। হোয়াইট হাউসে এক ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের স্ট্র্যাটেজিক কমিউনিকেশনের সমন্বয়ক জন কিরবি। বুধবার এই ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। এতে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে শ্রম আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে কারাদ-ের বিষয়ও উঠে আসে। ব্রিফিংয়ে সাংবাদিক মুশফিকুল ফজল আনসারি বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত ৭ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মনোভাব কি তা জানতে চান। মুশফিক প্রশ্ন করেন- বাংলাদেশে একতরফা নির্বাচন শেষ হয়েছে। এই নির্বাচনের আগে বিরোধীদের বিরুদ্ধে যে দমনপীড়ন চালানো হয়েছে, তা নিয়ে সমালোচনা হয়েছে বিশ্বব্যাপী। এই দমনপীড়নকে বেপরোয়া ক্র্যাকডাউন হিসেবে চিহ্নিত করেছে দ্য গার্ডিয়ান পত্রিকা।